ALWAR SARISKA LEOPARD TRAIL: FAMILY TRIP (BENGALI)

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা… চারদিনের ছুটি নিয়ে বেরিয়ে পড়েছি… বাহন Xylom… এবারের গন্তব্য – জয়পুর…দিল্লি…ফরিদাবাদ… আলোয়ার… সিলিসারী লেক … সারিস্কা.. জয়পুর।

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (2).. ছয় ঘণ্টার সাঙ্ঘাতিক ট্র্যাফিকের মধ্যে গাড়ি চালিয়ে রাত প্রায় এগারোটায় ফরিদাবাদ পৌঁছাতে পেরেছি গতকাল… আজকের দিন শুধুই আয়াশী আর আড্ডার প্ল্যান ছোট্টবেলার ইস্কুলের বন্ধু ভাস্করের বাড়িতে.. দুই ফ্যামিলি মিলে।ভারতও স্বাধীন, আমরাও স্বাধীন… বোতল খুলে ফেলা হয়েছে… সিঙ্গল মল্ট-গ্লেনফিডিশ, পাঁঠার কলিজা মসালা আর মাছের ডিমের বড়া… উফ্ – “এই তো জীবন… যাক না যেদিকে যেতে চায় প্রাণ… লোলা-লুলু… 😀”… আজকের দিন আজকে এভাবেই… কাল সক্কাল সক্কাল আবার চাকা ঘুরবে… রাজপ্রাসাদের অতিথি হতে। আমার গেঞ্জির মেসেজটাও মজার… Everything I like is either Illegal, Immoral, Fattening, Expensive or Impossible… Cheers…

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (3).. পার্টি চলছে বন্ধুর বাড়িতে দারুণ… রাত্রের মেনু মোমো, চিকেন মালাই টিক্কা, হনি চিলি আলু, আর ডিনারে কষা মটন, ফ্রায়েড রাইস, রুটি… এরই মাঝে, হঠাৎই একটা মুহূর্তের ফটো বুলেট তুলে ফেললো… #দাদা_বৌদি #বিলম্বিত_লয় … এই ফটোটা দেখেই আমার তো একটা গান মনে পড়ে গেল…
“এক বৈশাখে দেখা হলো দুজনায়
জৈষ্ঠ্যে হলো পরিচয়
আসছে আষাঢ় মাস.. মন তাই ভাবছে… কি হয় কি হয়”

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (4).. ভারতবর্ষের #টেক্সাস… হরিয়ানার মধ্যে দিয়ে ছুটে চলেছে জাইলোম… এই পৌছোবো এক দেড় ঘন্টার মধ্যেই আলোয়ার…

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (5) পৌঁছে গেছি রাজামহারাজা, বাঘ-সিংহের দেশে #আলোয়ার… থাকার ব্যাবস্থা হয়েছে একদম গরীবখানায়🤪🤪

বৈদিক যূগের ষোড়শ মহাজনপদের অন্যতম মহাজনপদ #মৎস্যদেশ.. এবং পরে #খানজাদা রাজপূত, #নিকুম্ভ রাজপূত, #বঢগুজ্জর রাজপূত এবং #নারুকা রাজপূত পরিবারের রাজপ্রাসাদে #ইটারনা_প্যালেসে (Itarna Palace)

…. ব্যাবস্থা এবং রাজকীয় ব্যাপারস্যাপার এমন যে বেশ পিলে চমকে যাবে… এন্জয় করা যাক দুদিনের রাজা হওয়ার মজা।

রাতে একটা লাইট শো এর মধ্যেই থাকা… কিন্তু তার আগে বিকেলে #সিলিসের লেক দেখে আসবো… কাল সকালে বাঘ খুঁজতে বেরুবো #সারিস্কা

 

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (6).. দাদা-বৌদি দুজন মিলে বিকেল হতেই গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে পড়েছি #সিলিসের_লেক (Siliserh Lake).. প্রায় ৭ বর্গকিমির এই লেক সারিস্কার buffer-zone এর মধ্যে, শুনেছি নাকি কুমিরও আছে। চারদিক পাহাড়ে ঘেরা, ঝিরি ঝিরি বৃষ্টি; মেঘ জড়িয়ে রেখেছে চারিপাশের পাহাড়.. কে বলবে এটা রাজস্থান।

আমরা RTDC র লেক-প্যালেসের বারান্দায় বসে থাকলাম বেশ খানিকক্ষণ.. প্রতিজনা ১০০ টাকা দিয়ে ঢুকতে হয় বলে অপেক্ষাকৃত খালি; ১২০ সিঁড়ি নেমে নৌকোয় চড়া যেত, যদিও টাকাটা বেশ বেশিই; কিন্তু ছাদেই বেশি ভালো লাগছিলো, তাই আর নৌকো চড়ি নি। মেঘলা আকাশে, সূর্য ডোবার খেলা দেখে সত্যি বাকরুদ্ধ হতে হয়; তাও… সেল্ফি তুলতে কিন্তু ভুলিনি 😀🙏

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (7).. #Leopard_sighting_with_kill
#লেপার্ড_দেখেছি_শিকারের_সাথে #ওরেব্বাবা… কি ভয়ঙ্কর সুন্দর, বলে বোঝানো যাবে না.. হাত পা কাঁপছিলো- 70-80 মিটার দূরে। সবাই বলেছিল বর্ষায় কিছু দেখতে পাব না.. কিন্তু আমি জানতাম, সারিস্কায় বর্ষায় কিল-সাইটিঙ হয়ই, ভাগ্যবানদের অবশ্য। পুরো ঘটনাটা বলি গুছিয়ে… আলোয়ার থেকে সকাল পাঁচটায় বেরিয়ে আমরা সারিস্কা টাইগার রিজার্ভ পৌঁছেছি প্রায় ৬টায়.. একটা খোলা জিপসি, গাউড (সিতারাম) এবং ড্রাইভার (রামকেশ মীনা) ভাড়া করে, টিকিট কেটে (Rs 4500 approx) সাড়ে ছটায় জঙ্গলের কোরয়ে প্রবেশ করি।

প্রথম এক ঘণ্টায় চিতল হরিণ, সম্বর, বণ্য শুয়োর, ময়ূর, পাখি দেখেই খুশি হয়েছি… হঠাৎ দুদিকের ঘণ জঙ্গল ভরা পাহাড়ের মাঝের গাড়ির শুঁড়িপথের প্রায় ৬০-৭০ মিটার ডানদিকে দেখি প্রায় ৭-৮ টা মোষ আর একটা গরু (গাইড বললো কোর এরিয়ার দুটো গ্রামের গরু চরতে এসেছে) পাহাড়ের দিকে একসাথে এগুচ্ছে আর পিছোচ্ছে আর অদ্ভুত একটা আওয়াজ করছে… গাইড তো সাথে সাথে বললো ” ভগবান মনে হয় সহায়, আজ সাইটিঙ হচ্ছে.. কিল হয়েছে” … কথা শেষ হয়নি, দেখি এক লেপার্ড (Leopard – বাংলায় চিতাবাঘ) একটা বাছুর মেরে গলাটা কামড়ে পাহাড়ের ওপর দিকে টেনে তুলছে, ঝোপের মধ্যে ঢুকে প্রায় মিনিট পাঁচেক কামড়ে বসে থাকলো বাছুরটা ছটপটাচ্ছে, সেটাকে একবার পুরো ঝাঁকি মেরে পাছাড় মারলো, একবার মুখ থেকে বাছুরটা ফেলে তাকালো আমাদের দিকে তারপর রাস্তা পালটে একটু অন্য দিকে পাহাড়ে টেনে নিয়ে চলে গেলো… আমরা প্রায় পনেরো মিনিট দাঁড়িয়ে দেখছি… কিন্তু আস্ত লেপার্ড টা পুরো শরীরে দেখা টোটাল ৫-৭ সেকেন্ড… ফোনের ক্যামেরায় ফটো, ভিডিও টিপেছি, কিন্তু উত্তেজনায় হাত পা কাঁপছিলো, আর পরে দেখলাম ফটো ভিডিও ফোনে ঠিকঠাক আসে না (দুটো ফটো দিলাম জায়গাটা বোঝাতে, একটা লাল গোলা মেরে দিয়েছি ওখানটায় বাছুরটার পেছনটা দেখা যাচ্ছে; আর ভিডিওটাতে খেয়াল করলে শুরুর দিকেই বাঘের আর বাছুরের ছটপটানির একটু আভাস পাওয়া যাবে)… বিগ-ক্যাট ফটোগ্রাফি কি আর শালা সস্তার ফোনে হয়… লাখটাকার ক্যামেরা লেন্স ইত্যাদি লাগে। সে ফটো উঠলো কি উঠলো না, সেটা বড় কথা নয়, আমরা যে নিজের চোখে দেখলাম… সেটাই জীবনের পাথেয় হয়ে রইলো। গাইড এবং ড্রাইভারকে মোটা বখশিশ দিয়ে খুশী করতে ভুলিনি

Some photos do have a story… There was a King, and there was a concubine, and a palace worth crores was made so that the King could come on hunting trips and spend time with his concubine.
“মিশরের মানুষী তার বুকের থেকে যে মুক্তা আমার নীল মদের গেলাসে রেখেছিল, হাজার হাজার বছর আগে এক রাতে তেমনি- তেমনি একটি তারা আকাশে জ্বলছে এখনো”… (শিকার.. জীবনানন্দ দাস… বনলতা সেন)

#দাদা_বৌদি_চ্যাঙা_ব্যাঙা #আলোয়ার_সারিস্কা (8).. ফেরত এসে গেছি জয়পুর; #বাড়িতে। একটাই ভাবনা রইলো সকলের জন্য… আমরা বাবা-মা হয়েও মাঝে সাজেই বাচ্চাদের বলি.. “চলো কয়েকদিন ইস্কুল কামাই করে বেড়িয়ে আসি। স্কুলে ফার্স্ট আসো দুজনেই, খুবই ভালো কথা, কিন্তু শুধু বই পড়ে ফার্স্ট হয়ে তো লাভ নেই… নিজের চোখে, নিজের দেশ চিনলেই তো সত্যিকারের ইতিহাস, ভূগোল, রসায়ন, জীববিজ্ঞান, শিখবে… Studying will provide knowledge, however seeing with own eyes will bring Wisdom”. পাহাড়, জঙ্গল, নদী, সমুদ্র, জীবজন্তু, মানুষের থেকে বড় জীবনের পাঠশালা তো কিছুই নেই”

Leave a Reply

Your email address will not be published.